বীর যোদ্ধা

গানের লিংক

এক বুক আশা নিয়ে একাত্তারে যুদ্ধ করেছিলেন বীর যোদ্ধা এখন বাহাত্তর বছরের বুড়া।
মনের আশা মনেই রইল চোখের স্বপ্ন ভাদ্রের মেঘের মত উবে গেল, ভিটা বাড়ি পুড়াবাড়ি হইল, হালের দামড়া পড়ে মরল খড়ায় ক্ষেতের ফসল পুড়ল পেটের লাগি অলি গলি দিতে হয় ধন্যা এখন ধুকাবাজরা তাঁকে করে তাড়া।
এক বুক আশা নিয়ে একাত্তারে যুদ্ধ করেছিলেন বীর যোদ্ধা এখন বাহাত্তর বছরের বুড়া।

সাদা কউতর ডানা মেলে উড়ে না আর আকাশে, ডাহুক ডাহুকি এখন আর ডাকে না হাওরে ধান নেই মাছ নেই, লজ্জায় মরতে চায় দোয়েল শাপলা আর ফুটতে চায় না, কেয়াবনে টোনাটুনি বসে থাকে নীরব যোদ্ধার মনে ক্ষীন আশা, চোখে জলের ধারা।
এক বুক আশা নিয়ে একাত্তারে যুদ্ধ করেছিলেন বীর যোদ্ধা এখন বাহাত্তর বছরের বুড়া।

প্রেম ভালোবাসা মায়া টান নেই মনে লজ্জাসংকোচহীন নারী অনবগুণ্ঠিত হচ্ছে ভ্রূণহন্তা, ভণ্ডবাবারা ধান্দাবাজি করে ধর্মব্যবসায়িরা টাকার কুমির হয়ে যায় এক রাতে, আরেক দল ধর্মান্ধ ধর্মশাস্ত্র পড়ে না, বলা কথা শোনে ধর্মগুরু হয়ে সহয সরল মানুষকে ঠকায়, বিপাকে সাধারণ জনতা ঠগের বাজারে ঠগিরা উল্লাস করে খালি কাঠগড়া।
এক বুক আশা নিয়ে একাত্তারে যুদ্ধ করেছিলেন বীর যোদ্ধা এখন বাহাত্তর বছরের বুড়া।

হাতে পায়ে ধরে ভোট ভিক্ষা করে রাজা রানী হয় ওরা নির্বাচিত হয়ে, খুনি আজাকাল আইনের রাজা বিধি বিধান গঠনকারী, বিধানসভা অধ্যাদেশ সবাই আছে বিধিবদ্ধ আইন ওরা মানে না বিধায় অসহায় হাভাতের হাতে হাতকড়া।
এক বুক আশা নিয়ে একাত্তারে যুদ্ধ করেছিলেন বীর যোদ্ধা এখন বাহাত্তর বছরের বুড়া।

মেয়ে বিয়ে দিতে হবে, বরের বাবা লাখ টাকা চায়, ছেলে বিয়ে করে পর হয়েছে, বীরাঙ্গনার কবরে কেউ আর ফুল দেয় না, ফাগুনের আগুনে এখন আর কারু মনে ভাষা আর দেশপ্রেমের মশাল জ্বলে না এক একুশ আর ষোলো তারিখে ইলিশ পান্তা খেয়ে প্রভাতফেরির নামে  উৎসব করে ওরা।
এক বুক আশা নিয়ে একাত্তারে যুদ্ধ করেছিলেন বীর যোদ্ধা এখন  বাহাত্তর বছরের বুড়া।

“Please do something for sake of humanity”

Friday, 4 June 2010
Now we need a Leader who Loves the country and country folks.
The leader who will share the hardship with the poor. As we are a poor nation, we need a leader who is not greedy. Greed itself is an act of cruelty.
Now we are in need of a loving leader who loves the poor and willing to share the pain and misery.
It means we need to change our leader or they need to change their way of thinking.
If they do or if we force them to be one of us, only than we will come out of poverty, otherwise we will be doomed.
We are loyal to them, therefore we need their loyalty.
We are desperate, please do something for sake of humanity

Bangali new year

নব বর্ষে অভিনব কবিতা ©

যায় দিন সুখে যায়, কিছু দিলে দুঃখী যায় হেসে,
বছর যায় বছর আসে, দিন যায় রাত ফুরায়।
গত বছর ধারকর্জ করেছিলাম
এখন টানাটানি করে কেঁথা ছিঁড়ি,
তালায় পান্তা লয়ে নোনের জন্য হাটে দৌড়ি।
পাতিলে এখন আর দই থাকেনা,
হাড়িতে ভাত নেই,
লুঙ্গিতে অনেক তালি দেওয়া হয়েছে,
গেঞ্জি একটা গায়ে আছে, তবে পশম নেই।
আজ আর বউ বাচ্ছার কথা বলবনা,
ওরা এখন আর লোক সামনে যায়না,
আমারই লজ্জা লাগে,
তাই ওরা আড়ালে থেকে আকাশে তাকায়।
সূর্য উঠেছে পূব আকাশে,
আজ নাকি নওরোজ, সবাই বলছে শুভ নব বর্ষ।
আকাশে মেঘ হয়তো জমবে,
তবে বৃষ্টি হবে কিনা আমি জানিনা।
লাঙ্গল জোয়াল কাঁধে নিয়ে ক্ষেতে যেতে হবে,
গাই দামড়া দুইটাই গত বছরের আগের বছর মরেছে।
আমার সিন্ধুক নেই, বাঁশের খুঁটিতে টাকা রাখতাম,
আজ আর ঘর বাড়ি নেই,
ঋণ পরিশোধ করা হয়নি, তাই বাউন্ডুলে হয়েছি,
তবুও ভোরে বউ হেসে বলল, হ্যাঁগো দোয়া কর,
এই বছরটা যেন শুভ হয়।

৯ ই ফাল্গুন

একাত্তরে জন্ম আমার, বাহান্নের খবর আমি মুখে মুখে শুনেছি,
ভিন দেশে এসে আমি সায়বানি বাংলার মূল্য বুঝেছি।
আট অথবা নয়-ই ফাল্গুনে মাতৃভাষায় কথা বলার দাবিতে,
বাংলার বীর সন্তানরা মিছিল করেছিলেন রাজপথে।
নরপশুরা অশীবকে সে দিন হার মানিয়েছিল,
বড়ত্ব দেখাবার জন্য নিরস্ত্রকে গুলি করে মেরেছিল।
ধর্মের দোহাই দিয়ে ওরা বাংলাকে গ্রাস করতে চেয়েছিল,
বাংলার বীর বীরাঙ্গনারা জান-বাজি ধরে ভাষাকে রক্ষা করেছিলেন,
কিন্তু বড় দুঃখের কথা, আজ বাংলা সন তারিখ আমি জানিনা।

৯ ই ফাল্গুন ১১৪১৬

ক ব ই ত আ!

আমি হলাম বাংলার বোকা ছেলে,
বোকামি করি আমি বাংলার বলে।
বাংলা আমাকে আদেশ করে,
বাংলা আমাকে সাহস দেয়,
বাংলা আমাকে লেখা লেখি করার জন্য বলে,
আমি হলাম বাংলার বোকা ছেলে।
বাংলা আমার স্বপ্নকে স্বপ্নিল করে,
বাংলা আমার আশা মেটায়,
বাংলা আমাকে গন্তব্য দেখিয়ে বলে,
আমার বুকে আয়রে আমার বোকা ছেলে।

২০/২/২০১০