হে নতুন!

পুরানের জন্য আতঙ্ক আমি একোদ্দিষ্ট হয়েছি নতুনত্বে অবিশঙ্ক,
খাঁটি জীবনশক্তি তোমাদের মাঝে আছে প্রতিযোগিতায় আস্ফালন,
অসাধ্যসাধনের দুর্দম বাসনা আছে পরিব্যপ্ত এবং অহংকারপূর্ণ দুঃসাহস।
দর্প বড়াইর সাথে একমাত্র তোমরাই প্রতিযোগিতা করতে পারবে,
তোমাদের কে সম্মান স্নেহ করি আমি আড়েহাতে কাজে সম্মোহিত হই,
যা’রা তোমাদের কে হিংসা করে, তাদের মনে আঁতলামো আছে মাৎসর্য,
হিংসা তাদের জন্য বৈদু্যতিকস্পর্শে মৃতু্যর কারণ হবে।
তোমাদের স্পর্ধা স্পষ্ট, তোমাদের ইচ্ছা গোলাপের মত হয় পরিস্ফুট,
তোমাদের মুখের বুলি স্পষ্ট কথা, স্পষ্টাচ্চারণে যা প্রকাশ হয় পরিস্ফুটভাবে।
হে নতুন!
ইতিহাসের পাতায় দিগ্বিজয়ের কাহিনি একমাত্র তোমরাই লিখতে পারবে স্পষ্টাক্ষরে,
তোমাদের অন্তরে পরশপাথর আছে, যার ছোঁয়া লাগলেই পাথর সোনা হয়,
তোমাদের নীরব দর্শক হল চাঁদ এবং তারা,
রাতের অন্ধকারে হেঁটে গন্তব্যে যাওয়ার জন্য আলো দেয় সূর্য,
একমাত্র তোমরাই পারবে সূর্যের আলোকে বারংবার ব্যবহার করতে,
দেহত্বক দ্বারা অনুভব করার গুণ আছে তোমাদের মাঝে ত্বগিন্দ্রিয়গ্রাহ্য গুণ,
আঁধলাকে গন্তব্যে পৌঁছাও তোমরা ঠেকাঠেকি করো পাহাড়ের সাথে,
আড়ে-দিঘে ঘাটের মড়া কে মেপেজোখে তোমরা স্পর্শ করো মৃতু্যকে।
তোমাদের নিশ্বাসে দুর্দশাপন্ন হয় অভিশাপ,
তজ-বিজে কাজ করলে শাপশাপাস্ত হবে দুর্বাসনা,
তোমাদের আত্মদানে শান্তিস্বস্ত্যয়ন হবে সমাজের,
পরমাত্মা তোমাদের মনের বাসনা পুরন করবেন মঙ্গল,
শান্তিলাভের জন্য শয়ন এবং আপদের শান্তি হল জাগরণ।
ভুল সবাই করে, ভুল থেকে যারা শিখে তাদের ভুল ফুল হয়,
নতুনত্বে বিশ্বাসিরা এক গলা জলে দাড়িয়ে নতুনের পক্ষপাতিত্ব করে,
ভাগ্যবিশিষ্ট আমি তোমাদের পক্ষে!
আমার বিশ্বাসকে ধ্বংস করলে তোমরাই ক্ষতিগ্রস্ত হবে।
হে নতুন!
দোয়া শুভকামনা তোমাদের জন্য। আন্তরিক দোয়ার প্রতিদান আন্তরিক দোয়া।
তোমাদের আন্তরিক দোয়ায় হব আমি মোক্ষপ্রাপ্ত। আমাদের গন্তব্য হবে নতুনত্ব!

Thinker

চিন্তকরা চিন্তা করে বলেন,

ভক্তিবলে মুক্তি মিলে, চিন্তায় মিলে ক্ষমা;

প্রেমীকরা মোক্ষকামী, চিন্তামণী রূপেগুণে পরমা।

ডানে PDF ফাইল আছে নামিয়ে নিন চিন্তা করে

 

চিন্তা PDF

অংশ্য-মান

অবিনশ্বর নয় নশ্বর আমি জানি মৃতু্য আমার জন্য অপেক্ষমাণ,

সামনে পিছনে, ডানে বাঁয়ে; উপরে নিচে ধন্না দিচ্ছে।

গ্লানি টেনে আমি ক্লান্ত হয়ে হুমড়ি খেয়ে পড়লেই হয়,

টেনে হিঁচড়ে যমের জাঙ্গালে নিয়ে যাবে, মনের হবে অপমান।

পাঁচ ফুট ৮ ইঞ্চি কবরের পাশে দাড়িয়ে ছায়া মেপে হই সমান,

অতীতে কত ভুল করেছি, পাপের খাতায় গিজগিজ করছে অভিশাপ,

কৃত কর্মের ফল ভোগ, পাপমোচন করব কেমন করে জানি না?

অন্তশয্যায় শোয়ে দেখলাম আমার ধন মান সম্পদের অংশ্য-মান।

অংশ্য-মান – বিণ. ভাগ করা হচ্ছে এমন। [সং. অন্শ+শানচ্]।

”Wish doll”

উঠতিবয়সে রূপ দেখে ঝাপ দিয়েছিলাম কাম দরিয়ায়,

মাবুদ তুমি করলায় সৃষ্টি মোরে নারী নাচায় ইশারায়।

পাপসাগরে দিবানিশি সাঁতরাই, পাতকি আমি নিরুপায়,

মাওলা ইয়া মাওলা, ক্ষমা চাই আগুন জ্বলে কলিজায়।

না জেনে না বুঝে প্রেমে মজে হাতের পুতুল হয়েছি হায়,

অবেলায় কাল ঘুম ভেঙ্গেছে আমার সর্বনাশ করেছে অবলায়।

You will be rewarded

“প্রতিদান তুমি মৃতু‍্যর পর পাবে”
Saturday, 10 July 2010

চাইলেই সুখী হওয়া যায় না দুঃখে অনেকেই হাসে, সুখ আসবে,
আত্মশোধন করতে পারলে দুখেরনিশি সুখের ঊষাকালে পোহাবে।
মনানন্দে পরোপকার করলে উপকারের ভাগ তোমারই থাকবে,
পরের সুখে নন্দিত হলে শিমুলের তুলার মত মন সুখে উড়বে।
আপন বলে কত জনের আপন হলে একদিন সব পর হয়ে যাবে,
সত্য মনে ভালোবেসে থাকলে প্রতিদান তুমি মৃতু‍্যর পর পাবে।